* মোহাম্মদপুর প্রিপারেটরি স্কুল এন্ড কলেজ এর ওয়েব সাইট ভিজিট করার জন্য আপনাকে ধন্যবাদ # একাদশ শ্রেণি (বালক/বালিকা) বাংলা ও ইংরেজি মাধ্যম আবেদনের যোগ্যতা: বিভাগ বালিকা শাখা বালক শাখা বিজ্ঞান: বাংলা ও ইংরেজি মাধ্যম জিপিএ ৪.৭৫ জিপিএ ৪.৫০ ব্যবসায় শিক্ষা: বাংলা ও ইংরেজি মাধ্যম জিপিএ ৩.৫০ জিপিএ ৩.০০ মানবিক (বাংলা মাধ্যম) জিপিএ ২.৫০। আবেদনকারী এসএমএস এর মাধ্যমে অথবা অনলআইনে (www.xiclassadmission.gov.bd) আবেদন করতে পারবে।রবে।

ছাত্রদের প্রতি নির্দেশনা

স্কুলের নিয়ম-শৃঙখলা :

প্রতিষ্ঠানের ঐতিহ্য, শিক্ষার মানোন্নয়ন ও আদর্শ পরিবেশ শিক্ষার্থী-শিক্ষক, অভিভাবক ও কর্মচারীদের সমন্বিত বেশ কিছু নিয়ম-শৃঙখলা ও আচার-আচরণের উপর নির্ভর করে। তাই প্রতিষ্ঠানের প্রতিটি শিক্ষার্থীর জন্য নিম্নে বর্ণিত নিয়ম-শৃঙখলা মেনে চলা বাধ্যতামূলক।

ক) পোশাক

ছাত্র/ছাত্রীদের প্রতিষ্ঠান কর্তৃক নির্ধারিত পোশাক ও আইডেনটিটি কার্ড অবশ্যই পরিধান করে আসতে হবে। নির্ধারিত ড্রেস ও আইডেনটি কার্ড ব্যতিত এবং নির্দিষ্ট সময়ের পর কোন ছাত্রীকে প্রতিষ্ঠানে প্রবেশ করতে দেওয়া হয় না।

খ) নিয়মিত উপস্থিত

প্রতিষ্ঠানের নিয়মিত উপস্থিতি সকল ছাত্রীর জন্য বাধ্যতামূলক। তবে শারীরিক অসুস্থতা ও অন্য কোন জরুরি কারণে কেউ অনুপস্থিত থাকলে দরখাস্ত প্রদান করতে হয়। ক্লাস শুরুর আগে এসেম্বিলিতে অংশগ্রহণ বাধ্যতামুলক। বুধবার ও বৃহস্পতিবার ক্লাস শুরু করার পূর্বে ১৫ মিনিট এসেম্বিলি করা হয়।

গ) ছুটি

বিশেষ বিবেচ্য কারণে প্রকৃত অভিভাবকের আবেদনক্রমে ছাত্রীদের সর্বোচ্চ ৫দিন ছুটি মঞ্জুর করা যেতে পারে। তবে পরীক্ষার ক্ষেত্রে তা প্রযোজ্য হবে না।

ঘ) ক্লাস চলাকালীন

ক্লাস চলাকালীন কোন ছাত্রী বারান্দায়, মাঠে, ক্যানিটনে কিংবা অন্য কোথাও থাকতে পারবে না। এ সময় কর্তৃপক্ষের প্রয়োজনীয় অনুমতি ছাড়া কেহ প্রাঙ্গন ত্যাগ করতে পারবে না।

নিম্নোক্ত যে কোন কারণে পূর্ব সতর্কীকরণ বিজ্ঞপ্তি বা বিজ্ঞপ্তি ছাড়াই যে কোন ছাত্রীকে বহিষ্কার বা ভর্তি বাতিল করে বের করে দেওয় যাবে।

১) পরীক্ষায় অসুদাপয় অবলম্বন

২) শ্রেণী কক্ষে নিয়ম-শৃঙখলা ভঙ্গ

৩) পাঠদানে ব্যাঘাত সৃষ্টি

৪) বিনা অনুমতিতে কলেজ প্রাঙ্গন ত্যাগ

৫) সংশ্লিষ্ট কারো সাথে অসদাচরণ বা খারাপ ব্যবহার করা

৬) দেয়াল নোংরা করা বা দেয়ালে কোন কিছু লেখলে

৭) ক্লাসে মোবাইল ফোন আনলে

 

 

কলেজের নিয়ম-শৃঙ্খলা :

কলেজের ঐতিহ্য, শিক্ষার মানোন্নয়ন ও শিক্ষার আদর্শ পরিবেশ ছাত্র-ছাত্রী-শিক্ষক, অভিভাবক ও কর্মচারীদের সমন্বিত বেশ কিছু নিয়ম-শৃঙ্খলা ও আচার-আচরণের ওপর নির্ভর করে। তাই কলেজের প্রতিটি ছাত্র-ছাত্রীর জন্য নিম্নে বর্ণিত নিয়ম-শৃঙ্খলা মেনে চলা বাধ্যতামূলক-
ক) পোষাক :

ছাত্র-ছাত্রীদের কলেজ কর্তৃক নির্ধারিত পোষাক ও আইডেনটিটি কার্ড অবশ্যই পরিধান করে কলেজে আসতে হয়। নির্ধারিত ড্রেস ও আইডেনটিটি কার্ড ব্যতীত এবং নির্দিষ্ট সময়ের পরে কোন ছাত্র-ছাত্রীকে কলেজে প্রবেশ করতে দেয়া হয় না।
খ) ক্লাসে নিয়মিত উপস্থিতি বাধ্যতামূলক :

কলেজে নিয়মিত উপস্থিতি সকল ছাত্র-ছাত্রীর জন্য বাধ্যতামূলক। তবে শারীরিক অসুস্থতা ও অন্য কোন জরুরি কারণে কোন ছাত্র-ছাত্রী অনুপস্থিত থাকলে দরখাস্ত প্রদান করতে হয়। নির্ধারিত দিনে ক্লাস শুরুর আগে এসেমব্লীতে অংশগ্রহণ বাধ্যতামূলক।

 

গ) ছুটি :

বিশেষ বিবেচ্য কারণে প্রকৃত অভিভাবকের আবেদনক্রমে ছাত্র-ছাত্রীদের সর্বোচ্চ ৫ দিন ছুটি মঞ্জুর করা যেতে পারে। তবে পরীক্ষার ক্ষেত্রে তা প্রযোজ্য হবে না।

ঘ) ক্লাস চলাকালীন সময় :

ক্লাস চলাকালীন সময় কোন ছাত্র-ছাত্রী বারান্দায়, মাঠে, ক্যান্টিনে কিংবা অন্য কোথাও থাকতে পারবে না। এ সময় কর্তৃপক্ষের প্রয়োজনীয় অনুমতি ছাড়া কোন ছাত্র-ছাত্রী কলেজ ক্যাম্পাসও ত্যাগ করতে পারবে না।

 

শৃংখলা :

নিম্নোক্ত যে কোন কারণে পূর্ব সতর্কীকরণ বিজ্ঞপ্তি বা বিজ্ঞপ্তি ছাড়াই যে কোন ছাত্র-ছাত্রীকে কলেজ হতে বহিষ্কার বা ভর্তি বাতিল করে বের করে দেওয়া যাবে।

(১) পরীক্ষায় অসদুপায় অবলম্বন

(২) শ্রেণী কক্ষে নিয়ম-শৃঙ্খলা ভঙ্গ

(৩) পাঠদানে ব্যাঘাত সৃষ্টি

(৪) বিনা অনুমতিতে কলেজ প্রাঙ্গণ ত্যাগ

(৫) সংশ্লিষ্ট কারো সাথে অসদাচরণ বা খারাপ ব্যবহার করা।

ছাত্র/ছাত্রী-শিক্ষক ও অভিভাবক দিবস :

কলেজ কর্তৃক নির্ধারিত দিনে বিভিন্ন পরীক্ষার পর ছাত্র/ছাত্রী-শিক্ষক ও অভিভাবক দিবস পালিত হয়। এই দিবসে অভিভাবকগণের উপস্থিতি একান্তই আবশ্যক। এই দিবসে ছাত্র/ছাত্রীদের বিভিন্ন বিষয়ের অগ্রগতি সম্পর্কে পর্যালোচনা ও মতামত বিনিময় করা হয় যাতে ছাত্র/ছাত্রীরা ভাল ফলাফল অর্জন করতে সক্ষম হয়।